Home / ত্বকের যত্ন / ফর্সা হতে চান? তাহলে সপ্তাহে এক-দুবার মুখে লাগান দই ফেসপ্যাক!

ফর্সা হতে চান? তাহলে সপ্তাহে এক-দুবার মুখে লাগান দই ফেসপ্যাক!

বাজার চলতি ফর্সা হওয়ার ক্রিম মেখে মেখে ক্লান্ত। তাহলে এখনই পড়ে ফেলুন এই প্রবন্ধটি। কারণ এই লেখায় এমন কিছু সহজ পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করা হল, যা ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে সেই প্রাচীন কাল থেকে কাজে লেগে আসছে। দইয়ে এমন কিছু উপাদান রয়েছে, যা ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে দারুন কাজে আসে। তাই তো মহিলা মহলে এই প্রাকৃতিক উপাদানটির এত কদর।

প্রসঙ্গত, নানা ভাবে ত্বকে দই লাগানো যেতে পারে। যার কতগুলি সম্পর্কে এই লেখায় আলোচনা করা হল। এর মধ্যে যে কোনও একটি বেছে নিয়ে সপ্তাহে এক-দুবার মুখে লাগালেই ফল পেতে শুরু করবেন। তবে মুখে দই লাগানোর আগে একবার দেখে নেবেন এটি থেকে আপনার অ্যালার্জি অথবা অন্য় কোনও সমস্যা হয় কিনা।

চলুন তাহলে অপেক্ষা কিসের। জেনে নেওয়া যাক ফর্সা হতে দইয়ের নানা ব্যবহার সম্পর্কে।

১. দই এবং রাইস পাউডার:
১ চামচ টক দইয়ের সঙ্গে ১ চামচ রাইস পাউডার মিশিয়ে ধীরে ধীরে সারা মুখে মিশ্রনটি লাগিয়ে ফেলুন। কিছুক্ষণ রেখে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন সারা মুখটা।

২. দই এবং শসা:
ত্বককে ফর্সা করতে এটি সবথেকে কার্যকরি মিশ্রন। পরিমাণ মতো দইয়ের সঙ্গে শসা মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে ফেলুন। আধ ঘন্টা পর মুখটা ধুয়ে ফেলুন।

৩. দই, টমাটো এবং মধু:
১ চামচ দই, ১ চামচ টমাটোর ভিতরের অংশ আর ১ চামচ মধু এক সঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগান। সপ্তাহ খানিক এটি মুখে লাগালেই দেখবেন ত্বক কেমন সুন্দর হয়ে ওঠে।

৪. দই, অ্যালো ভেরা জেল এবং অলিভ অয়েল:
এই তিনটি উপাদানই ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে সক্ষম। তাই তো এই মিশ্রনটিকে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে এত কাজে লাগানো হয়। ১ চামচ দইয়ের সঙ্গে ২ চামচ অ্যালো ভেরা জেল এবং ৩ ড্রপ অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিন। তারপর এই মিশ্রনটি মুখে ও গলায় লাগান। কিচুক্ষণ রাখার পর মুখটা ধুয়ে নিয়ে ভাল করে মুখটা মুছে নিন।

৫. দই, গোলাপ জল আর অরেঞ্জ পিল পাউডার:
১ চামচ অরেঞ্জ পিল পাউডারের সঙ্গে ১ চামচ দই এবং কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল মিশিয়ে একটা মিশ্রন বানিয়ে ফেলুন। তারপর সেটি মুখে লাগান। সপ্তাহে একবার এই মিশ্রনটি মুখে লাগালেই দেখবেন কেমন সুন্দর হয়ে উঠতে শুরু করে আপনার ত্বক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *