Home / অন্যান্য / আমি বাধ্য হয়েই সাত মাসের একটা বাচ্চাও নষ্ট করেছি…

আমি বাধ্য হয়েই সাত মাসের একটা বাচ্চাও নষ্ট করেছি…

আমি সুমী (ছদ্মনাম)। অনার্স ২য় বর্ষ ফাইনাল দিচ্ছি একটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। কোন দিন কারো সাথে সম্পর্ক করবো না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। কারন ক্লাস 9 এ পড়ার সময় একটা ছেলের সাথে আমার রিলেশন ছিল। ছেলেটি একদিন জোর করে আমাকে একটা কিস করেছিল।

ঐদিন থেকে রিলেশন অফ করি। এর মাঝে আর কারো সাথে রিলেশনে জড়াইনি। গত নয় মাস আগে আমাদের এলাকার একটা ছেলে আমার আঙ্কেলের মোবাইল থেকে আমার নাম্বার নিয়ে আমার সাথে রঙ নাম্বারে কথা বলে। পরে অবশ্য পরিচয় দেয়। একসময় তার সাথে রিলেশন হয়ে যায়। ভালই চলছিল আমাদের রিলেশন। একদিন ওর বাসার সবার সাথে পরিচয় করিয়ে দিবে বলে বাসায় ডাকে। আমি যাই।

গিয়ে দেখি বাসায় কেউ নাই। সে সময় আমাকে ওর সাথে শারীরিক মেলামেশা করতে বলে। আমি সরাসরি মানা করে দেই। কিন্তু ও শুনলনা আমার কথা। কেমন জানি বন্যের মত আচরন শুরু করল। অনেক কাকুতি মিনতি করেও লাভ হলনা। সেদিন ও জোর করে আমার সাথে শারীরিক সম্পর্ক করে। সব কিছু করার পর আমার কাছে মাফ চায়। বলে ওর নাকি মাথা ঠিক ছিলনা।

ও আমাকে বিয়ে করবেও বলে প্রমিজ করে। এরপর আমি ওর সাথে সমস্ত যোগাযোগ বন্ধ করে দেই। তখন ও অনেক পাগলামি করে। ২ মাস পর আবার ওর সাথে সম্পর্ক হয়। এরপর ওর সাথে অসংখ্য বার শারীরিক সম্পর্ক হয়। সাত মাসের একটা বাচ্চাও নষ্ট করেছি। ওকে বিয়ে করবো বলে আমি রিলেশন করি।

কিছুদিন আগে জানলাম ও নাকি অনেক আগেই বিয়ে করেছে। পাঁচ বছরের একটা মেয়েও আছে যা সামাজিকভাবে কেউ জানে না। ও আমাকে এখনও বিয়ে করতে চায়। এখন আমার কি করা উচিত ? আমি অন্য কোন ছেলেকে ঠকাতে চাইনা। ভাইয়া আপনাদের পেজে আমার ঘটনাটি শেয়ার করবেন প্লিজ, অনেকেই হয়তো আমাকে খারাপ কিছু বলবে কিন্তু এই মুহুর্তে আমি সবার কাছ থেকে সহানুভূতি এবং মতামত চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *